November 26, 2020

শ্যামল রায়,


তুলসী গাছ বায়ু দূষণের হাত থেকে যেমন বাঁচা যায় তেমনি অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে কাজ করে। তাই হাসপাতালে মধ্যে অনেকটা জায়গা রয়েছে সেখানে লাগিয়ে দেয়া হয়েছে তুলসী গাছ বাসক পাতা কালো মেঘ এবং আলবেরা। রবিবারে হাসপাতালের মধ্যে এই সমস্ত গাছ লাগালেন রাজ্যের অন্যতম মন্ত্রী তথা প্রকৃতি ও পশু প্রেমী সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা স্বপন দেবনাথ। তিনি জানিয়েছেন যে এই সমস্ত গাছ বায়ু দূষণের হাত থেকে বাঁচা যায় তেমনি অ্যান্টিবায়োটিক হিসাবে মানুষের দেহে কাজ করে থাকে। তিনি আরো জানিয়েছেন কালনা মহকুমা স্পেশালিস্ট হাসপাতলে ফিমেল এবং মেইল ওয়ার্ডের মধ্যে অনেকটা জায়গা রয়েছে। দেখা গিয়েছে এই জায়গায় বহু নোংরা আবর্জনা ফেলে থাকেন হাসপাতালে আসা রোগী এবং অনেকে। জায়গাটি পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। তাই জায়গা থেকে সুন্দর এবং ভালো রাখার জন্য আমরা প্রকৃতি ও পশুপ্রেমী সংগঠনের তরফ থেকে বায়ু দূষণ রোধে এদিন ১৪০ টি তুলসী গাছ লাগানো হয়েছে। তিনি আরো জানিয়েছেন ধাপে ধাপে এই সমস্ত গাছ লাগানো হবে।
এছাড়াও এদিন পূর্বস্থলী এক নম্বর ব্লকের মবিলে শতাধিক অসমীয়া সুপারির গাছ লাগানো হয়েছে। মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানিয়েছেন যে পশুপ্রেমী অন্বেষার এন্ড এনিমেল সংস্থার উদ্যোগে প্রতি রবিবার আমরা বাশদহ এবং চাঁদের বিলে নামিদামি বৃক্ষ রোপন এবং অসমীয়া সুপারি গাছ লাগাচ্ছি। এই সুপারি গাছ দ্রুত বেড়ে উঠবে এবং প্রচুর ফলন দেবে বলে তিনি মনে করছেন তাই আগামী দিন এই সমস্ত এলাকার উন্নয়নের জন্য এই সমস্ত গাছের ভূমিকা থাকবে যথেষ্ট। এ পর্যন্ত দুই শতাধিক সুপারি গাছ লাগানো হয়েছে ওই সমস্ত এলাকায়। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সম্পাদক তাপস কারফা।