October 21, 2020

শ্যামল রায়,


লকডাউন এর কারণে অসংগঠিত শ্রমিকদের চরম আর্থিক সংকট। কর্মহীন হয়ে পড়ায় সংসারে নুন আনতে পান্তা ফুরায় অবস্থা হয়ে দাঁড়িয়েছে এখন। বুধবার পশ্চিমবঙ্গ রেলওয়ে ইউনিয়নের তরফ থেকে কাটোয়া মহকুমা শাসক কে বিকল্প আইয়ের দাবিতে ডেপুটেশন দেওয়া হয়। সিপিএম নেতারা দাবি করেছেন যে ট্রেনে হকারি করে তারা সংসার চালিয়ে আসছেন। কেউবা প্লাটফর্মে ছোট দোকান ঘর করে ব্যবসা করে সংসার চালাতেন। করোনার পরিস্থিতিতে তারা বেসামাল হয়ে পড়েছেন। কর্মহীন থাকার কারণে দিনের পর দিন তারা কি করবেন চিন্তিত।
এদিন হকার্স ইউনিয়নের কয়েকশো হকার ডেপুটেশন মহকুমা শাসকের কাছে। একাধিক দাবির মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল প্রতিমাসে অসংগঠিত শ্রমিক হকারদের কে ৩৫ কেজি খাদ্যশস্য অনুদান হিসেবে দিতে হবে। এছাড়াও প্রতিমাসে ভাত খাবে ৭৫০০ টাকা করে দিতে হবে। এছাড়াও আরেকটি উল্লেখযোগ্য দাবি তুলে ধরেছেন যে রেশনে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ নিয়ে দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে। এইসব দাবির সমর্থনে বিক্ষোভ দেখান রেলওয়ে হকার্স। পাশাপাশি করোনার বিষয়ে পর্যালোচনা করে দ্রুত ট্রেন চলাচলের ব্যবস্থা করতে হবে সরকারকে। মহকুমা শাসক প্রশান্ত রাজ শুক্লা জানিয়েছেন যে ডেপুটেশনের কপি হাতে পেয়েছি বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।