October 28, 2020

গোপাল দেবনাথ,

সারা ভারত জুড়ে প্রতিবছর ১ জুলাই এই দিনটিকে জাতীয় ডাক্তার দিবস পালন করা হয়।১ জুলাই ডাঃ বিধান চন্দ্র রায়ের জন্মদিন আবার একই দিনেই তাঁর মৃত্যুদিনও বটে।যারা নিজেদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে অন্যের জীবন দানে রত সেইসব চিকিৎসকদের শ্রদ্ধা ও সম্মান জানাতে এই দিনটিকে চিকিৎসক দিবস হিসাবে উদযাপন করা হয়।
চিকিৎসক দিবস এবং ডাঃ বিধান চন্দ্র রায়ের জন্মদিন উপলক্ষে ১ জুলাই (বুধবার) ২০২০ ‘দ্যা মেডিহেল্প এল্ডার কেয়ার ‘ আর.জি.কর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া ১০০ জন রোগীদের ফল এবং মিষ্টি বিতরণ করল। অনুষ্ঠানটির মূল লক্ষ্যই ছিল আর্থিকভাবে পিছিয়ে পরা মানুষগুলির মুখে এক টুকরো হাসি ফুটিয়ে তোলা।

২০০৬ সালের পর থেকে প্রতিবছরই ‘দ্যা মেডিহেল্প এল্ডার কেয়ার ‘ সংগঠনটি বিভিন্ন সামাজিক ক্রিয়াকলাপের মাধ্যমে এই দিবসটি পালন করে আসছে। এই বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সুবীর গাঙ্গুলি (প্রতিষ্ঠাতা ও এমডি, দ্যা মেডিহেল্প এল্ডার কেয়ার ) ডাঃ মনস মুখোপাধ্যায় (মেডিকেল সুপারিনটেনডেন্ট, আর.জি. কর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, কলকাতা), ডাঃ বিকাশ ঘোষ, তরুণ সাহা (বোরো চেয়ারম্যান), অমিতাভ রায় (ইউনিয়ন সভাপতি) বিমল দাস (ইউনিয়ন সম্পাদক), বিক্রম কান্তি, রঞ্জিত বাল্মীকি এবং ডাঃ সুদীপ্ত রায় (এমএলএ) ।

‘দ্যা মেডিহেল্প এল্ডার কেয়ার ‘ এদের প্রধান কাজ শারীরিকভাবে অক্ষম বয়স্ক ব্যক্তিদের চিকিৎসা করার পাশাপশি বাড়িতে গিয়ে বিশেষ পদ্ধতিতে চিকিৎসা করে সুস্থ করে তোলে। এই সংস্থার প্রধান লক্ষ্যই হ’ল পরিচর্যা প্রদানের মাধ্যমে বয়স্ক ব্যক্তিদের বাড়ির পরিবেশে খুশি রাখা, সক্রিয় এবং স্বাধীন জীবনযাপনে সহায়তা করা।

‘দ্যা মেডিহেল্প এল্ডার কেয়ার ‘- এর প্রতিষ্ঠাতা ও এমডি সুবীর গাঙ্গুলির কথায়, “গত কয়েক বছর ধরে, চিকিৎসা সংক্রান্ত ক্ষেত্রে সচেতনতা বাড়াতে আমরা বিভিন্ন স্বাস্থ্য শিবির, সেমিনার এবং সামাজিক মাধ্যমে প্রচার চালাচ্ছি। বিভিন্ন ধরনের কাজের পাশাপাশি দুস্থ মানুষদের নিয়ে আগামী দিনে এক বিরাট পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হতে চলেছে।যেটা ভারতবর্ষ তথা পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন আনবে। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে সে কাজ। সেখানে দুস্থ মানুষ থেকে মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা উপকৃত হবেন এটা বলাই বাহুল্য। তবে তা ক্রমশ প্রকাশ্য”।