December 5, 2020

মোল্লা জসিমউদ্দিন,


শুক্রবার ভোর পাঁচটার দিকে হৃদরোগে মারা গেলেন হাইকোর্টের কর্মরত বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায়। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫১। কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের অকাল প্রয়াণে শোকাহত এই রাজ্যের আইনমহল। ইতিমধ্যেই রাজ্যের রাজ্যপাল এবং মুখ্যমন্ত্রী বিচারপতির প্রয়াণে শোকবার্তা জানিয়েছেন। কলকাতা হাইকোর্টের বার এসোসিয়েশন, বার কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গল সহ জেলার সমস্ত বার এসোসিয়েশন বিচারপতির অকাল মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ । প্রয়াত বিচারপতির কলকাতা হাইকোর্টে  গত তিন বছরে বেশকিছু মামলার রায়দানে প্রশংসিত হয়েছেন। অতীতে দক্ষ আইনজীবীর পাশাপাশি তাঁর পাশ্চাত্য সঙ্গীত পরিচালনাতে ভূমিকা উল্লেখযোগ্যভাবে প্রশংসনীয়। বার কাউন্সিল অফ ওয়েস্ট বেঙ্গলের পক্ষে আনসার মন্ডল জানান – ” উনার অকাল প্রয়াণে আমরা শোকাহত, বিচারপতি হিসাবে সর্বজনগ্রাহ্যতা ছিল উনার “। কলকাতা হাইকোর্টের বার এসোসিয়েশনের পক্ষে অর্পণা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন – ” আমাদের বার এসোসিয়েশনের একদা সহ সভাপতি কে চিরতরে  হারিয়ে আমরা শোকাহত”। উল্লেখ্য, কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৬৯ সালের ১ জুন জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা ছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের স্বনামধন্য আইনজীবী মুকুল প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রয়াত বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর পেশাগত জীবনে ১৯৯৫ সালে ২৫ জুলাই কলকাতা হাইকোর্টে আইনজীবী হিসাবে বার এসোসিয়েশনের সদস্যপদ গ্রহণ করেন৷ পরবর্তী ক্ষেত্রে হাইকোর্টের বার এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। তাঁর আইন বিষয়ক বেশকিছু রচনা জনপ্রিয়তা লাভ করে থাকে। ডিজিটাল মিডিয়ায় ব্লগে তাঁর ‘প্রতীকদা’ সাইট টি অত্যন্ত জনপ্রিয় ছিল আইনজীবীদের মধ্যে। এছাড়া ১৯৮৪ সাল থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত ‘অল ইন্ডিয়া রেডিও’তে পাশ্চাত্য সঙ্গীত পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। পরবর্তী ক্ষেত্রে  ২০১৭ সালে ২০ সেপ্টেম্বর কলকাতা হাইকোর্টের অস্থায়ী বিচারপতি হিসাবে দায়িত্বভার নেন৷   কলকাতা পুলিশের প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার মামলা সহ নানান গুরত্বপূর্ণ মামলায় বিচারপতি হিসাবে ছিলেন প্রয়াত প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায় মহাশয়। শুক্রবার ভোর পাঁচটা নাগাদ কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হৃদরোগে মারা যান কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি প্রতীক প্রকাশ বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর অকাল প্রয়াণে রাজ্যপাল – মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি এই রাজ্যের আইনমহল গভীরভাবে শোকাহত।