November 26, 2020

কাজল মিত্র,

পশ্চিম বর্ধমান জেলা সংখ্যালঘু সেলের চেয়ারম্যান গোলাম সরবর এর নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় সরকার জনগণবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে আসানসোলের গির্জা মোড় থেকে একটি বিশাল প্রতিবাদ রেলির আয়োজন করা হয়। এই প্রতিবাদ রেলিতে সামাজিক দূরত্ব অনুসরণ করে মাস্ক ব্যাবহার করে এই রেলিতে অংশগ্রহণ করে।তাছাড়া এই রেলির মধ্যদিয়ে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছিল।এদিন আসানসোলের রাজপথে মহিষেটানা গাড়ি নিয়ে অভিনব প্রতিবাদ কর্মসূচি করলেন তৃনমুলের সংখ্যালঘু সেলের চেয়ারম্যান গুলাম শরবর,
বৃহস্পতিবার সকালে পেট্রপন্যের মূল্য বৃদ্ধি, রেল ,কয়লা বেসরকারি করন সহ একাধিক দাবি নিয়ে এই প্রতিবাদ মিছিল করা হয়।যেখানে মহিষে টানা গাড়ি নিয়ে গির্জামোড় থেকে করপোরেশন মোড় পর্যন্ত এই প্রতিবাদ মিছিল করা হয়েছে ।মিছিলে পা মেলান পুরসভার কাউন্সিলার সহ আসানসোল পৌর কর্পোরেশনের মেয়র তথা পশ্চিম বর্ধমান জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি জিতেন্দ্র তিওয়ারি, রবিউল ইসলাম সহ বিভিন্ন ধর্মের ধর্মীয় নেতারা।
মেয়ার জিতেন্দ্র তেওয়ারি করপোরেশন মোড়ের পথ সভায় উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন,এই সময়ে আপনারা এই ধরনের প্রতিবাদে সামিল হয়ে মমতা ব্যানার্জির হাত আরো শক্তিশালী করার জন্য ধন্যবাদ ।
এদিন গোলাম শরবর বলেন যে
পেট্রল, ডিজেল ও গ্যাসের দাম বৃদ্ধির বিরোধিতা সমাবেশের মূল ইস্যু ছিল।পেট্রোল ও ডিজেলের বিশাল দামের বৃদ্ধিের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা মহিষ গরিকরে জনগণকে আবারও ষাঁড়ের গাড়ীর যুগে ফিরে আসতে হবে। সংখ্যালঘু কোষ কর্তৃক এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছিল, তবে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় নেতারা ছাড়াও ধর্মীয় গুরু ও অন্যান্য ধর্মের সাধারণ মানুষও এতে অংশ নিয়েছিলেনএদিন নেতারা বলেছিলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের জনবিরোধী নীতির কারণে ধর্মের লোকেদের দেশে যে সংকট সৃষ্টি হয়েছে তা সবসময়ের জন্য থাকবে না আর তাই এজন্য সকলকে বিরোধিতা করা দরকার। এই প্রতিবাদ মিছিল আসানসোল গির্জা মোড় থেকে শুরু হয়ে আসানসোল পৌরসভাই গিয়ে শেষ হয়েছিল। এদিন এই মিছিলে কুলটি ব্লকের প্রাক্তন কাউন্সিলর সেলিম আক্তার, টিএমসির কাউন্সিলর আক্তার হুসেন,সালানপুর ব্লক মাইনোরেটি সেলের নেতা বুড়া খান সহ বহু তৃণমূল নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।