October 28, 2020

জ্যোতিপ্রকাশ মুখার্জি,


শহুরে সমবায় ব্যাংকগুলির উপর রিজার্ভ ব্যাংকের হস্তক্ষেপের কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখালো পূর্ব বর্ধমানের গুসকরা শহর তৃণমূল কংগ্রেস।
ব্যাঙ্কিং লাইসেন্স রিজার্ভ ব্যাংক দিলেও এতদিন পর্যন্ত শহুরে সমবায় ব্যাংকগুলির উপর নিয়ন্ত্রণ ছিল রাজ্য সরকারগুলির। শহুরে সমবায় ব্যাংকগুলির উপর রিজার্ভ ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণ আনার জন্য সম্প্রতি কেন্দ্র সরকার এক অধ্যাদেশ জারি করেছে। কেন্দ্রীয় সরকারের বক্তব্য এরফলে নাকি সারাদেশের প্রায় দেড় হাজার শহুরে ও মাল্টি স্টেট সমবায় ব্যাংকের সাড়ে আট কোটির বেশি গ্রাহকের প্রায় পাঁচ লক্ষ কোটি টাকা বেশি সুরক্ষিত থাকবে।
কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে দলনেত্রী মমতা ব্যানার্জ্জীর নির্দেশে রাজ্যের অন্যান্য প্রান্তের সঙ্গে গুসকরা শহর তৃণমূল সভাপতি কুশল মুখার্জ্জীর নেতৃত্বে ১০ ই জুলাই তৃণমূল কংগ্রেস বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের পাদদেশে আয়োজিত এই সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন আউসগ্রাম ১নং ব্লক সভাপতি সেখ সালেক রহমান, কার্যকরী সভাপতি প্রশান্ত গোস্বামী, শহর যুব সভাপতি দেবব্রত শ্যাম, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সাধারণ সম্পাদক গণেশ পাঁজা সহ তৃণমূলের প্রতিটি শাখা সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। সভায় প্রতিটি বক্তা কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানান।
কুশল বাবুর বক্তব্য- দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলির উপর তো রিজার্ভ ব্যাংকের নিয়ন্ত্রণ আছে। তাহলে বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকে এত দূর্নীতির অভিযোগ ওঠে কেন? কেন সেখানে কোটি কোটি টাকা অনাদায়ী ঋণ পড়ে থাকে?তাহলে কি নিয়ন্ত্রণের নামে কেন্দ্র সরকারের অন্য কোনো উদ্দেশ্য আছে? কুশল বাবুর আশঙ্কা এবার কেন্দ্রীয় সরকার হয়তো ঘুরপথে সমবায় ব্যাংকের টাকা নিজের ‘পেয়ারের’ ব্যবসাদারদের হাতে ঋণ হিসেবে তুলে দেবে।