October 22, 2020

পেট্রোল ও ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধির বিরুদ্ধে ডাক ঢোল বাজিয়ে সালানপুর ব্লক কংগ্রেসের প্রতিবাদ মিছিল

কাজল মিত্র

:-মিছিলের সামনে ভ্যানে চড়িয়ে মোটরবাইকের শবদেহ সাদা কাপড়ে মুড়ে মোদির কুশ পুতুলে জুতোর মালা পরিয়ে ঢাক ঢোল বাজিয়ে রবিবার সকালে কেন্দ্র সরকারের ভুল নীতির বিরুদ্ধে,পেট্রোলও ডিজেল রান্নার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি সহ ভারতীয় রেল ও কোল ইন্ডিয়ার বেসরকারি করনের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঢাক ঢোল বাজিয়ে মিছিল করলো সালানপুর ব্লক কংগ্রেস ।
রবিবার পেট্রোল ও ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে সালানপুর ব্লক কংগ্রেসের উদ্যোগে এই বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়। এদিন রূপনারায়নপুর জাতীয় কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয় থেকে শতাধিক কংগ্রেস সমর্থক পায়ে হেঁটে বিহার রোড পেট্রোল পাম্প পর্যন্ত এই মিছিল করে ।এই মিছিলের নেতৃত্বে দেন জেলা সালানপুর ব্লক কংগ্রেসের সভাপতি রনেন বাগচী,
এদিন এই প্রতিবাদ মিছিলের মধ্যদিয়ে রনেন বাগচী বলেন যে
পেট্রোলের দাম বিরাশি টাকা। আন্তর্জাতিক বাজারে যখন তেলের দাম তলানিতে তখন দেশ ও রাজ্যে পেট্রোল ডিজেলের লাগাতার মূল্যবৃদ্ধি হচ্ছে।আর ডিজেলের দাম পেট্রোল এর দামের চাইতে বেশি কোনদিন শোনা যায়নি যে পেট্রোলের চাইতে ডিজেলের দাম বেশি ।আর এই ডিজেল এর উপরই সকল যাতায়াত ব্যাবস্থা নির্ভর করে যার ফলে জিনিসের দাম ও বৃদ্ধি পাচ্ছে ।তাছাড়া যে সেনেতাইজার রয়েছে তার জিএসটি ট্যাক্স বৃদ্ধি করেছে এই কেন্দ্রীয় সরকার।তবে তিনি এক করোনা ভয়াবহ পরিস্থিতিযে পুলিশ কর্মী ডাক্তার, সিভিক ভলান্টিয়ার সহ প্রশাসনিক কর্তাদের করোনা যোদ্ধা হিসেবে প্রসংসা করেছেন।
এই প্রসঙ্গে জেলার যুব কংগ্রেসের সভাপতি সৌভিক মুখার্জি বলেন কেন্দ্র সরকারের শোষণ নীতির বিরুদ্ধে,যেভাবে এই মোদি সরকার দিনের পর দিন পেট্রোল ও ডিজেলের মূল্য বৃদ্ধি করছে এবং তার সাথে রান্নার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি ও ভারতীয় রেল,কোল ইন্ডিয়ার বেসরকারিকরনের ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে আজ মোটর সাইকেল ও গ্যাসের সিলিন্ডারে মালা পরিয়ে ঢাক ঢোল বাজিয়ে সাধারণ মানুষকে সজাগ করতে রূপনারায়নপুর ডাবরমোড় এর সালানপুর ব্লক কংগ্রেস কার্যালয় থেকে শুরু করে বিহাররোড পেট্রোলপাম্প পর্যন্ত পাঁয়ে হেঁটে একটি প্রতিবাদ মিছিল করা হলো।এই মোদি সরকার দিনের পর দিন সাধারণ মানুষের শোষণ করে চলেছে তার আমরা প্রতিবাদ জানায়।তিনি বলেন বাবুল সুপ্রিয় কে কটাক্ষ করে বলেন যে যে বাবুল সুপ্রিয় আসানসোল এর সংসদ তাকে এই লকডাউন এ একদিনও দেখা যায়নি ,কিন্তু ভোট এলেই মানুষের কাছে পৌঁছে যাবে ভিক্ষা চাইতে ।আর এই কেন্দ্রীয় সরকার যেভাবে মানুষকে ঠকাচ্ছে এতে মানুষ বুঝতে পারছেনা।শুধু মানুষ কে কাজে লাগিয়ে ভোট ব্যাংক ব্যাবহার করছে ।তবে মানুষ এর জবাব ঠিক দেবে ।শুধু মানুষ ঠকিয়ে ভোটে যেটা যায়না সাধারণ মানুষের সাথে থেকে কাজ করতে হয় ।

এই প্রতিবাদ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা কংগ্রেস এর ওয়ার্কিং প্রেসিডেন্ট প্রসেনজিৎ পুইতন্ডি, জেলার যুব কংগ্রেসের সম্পাদক জয়দেব রায়, সি.আর.এমসি জয়েন্ট সেক্রেটারি ইন্দ্রজিৎ সিংহ,
সি.আর.এমসি জেনারেল সেক্রেটারি স্বপন লাহা, এসকে সাহি,রমাকান্ত ঝাঁ, বরুন মন্ডল,পরেশ নাথ প্রসাদ, অংশুমান মাহাতা, ভারত বিশ্বকর্মা সহ বহু কংগ্রেস সমর্থক ।