November 26, 2020

নির্ধারিত সূচিতেই সর্বভারতীয় ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষা হবে, সুপ্রিম কোর্ট

মোল্লা জসিমউদ্দিন


শুক্রবার দেশের সর্বোচ্চ আদালতের তিন সদস্যের বিচারপতিদের বেঞ্চ সর্বভারতীয় ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিং প্রবেশিকা পরীক্ষা বিষয়ক মামলায় পূর্বের রায় বহাল রাখলো। পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের ৬ রাজ্যের সরকার গত ২৮ আগস্ট যে রায় পুনবিবেচনার আবেদন জানিয়েছিল, আজ অর্থাৎ শুক্রবার তা খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট। এদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি বি.আর.গাভাই এবং বিচারপতি কৃষ্ণ মুরারির বেঞ্চ ৬ রাজ্যের করা রিভিউ পিটিশন খারিজ করে দেয়। গত ১৭ আগস্ট সুপ্রিম কোর্ট যে রায়দান দিয়েছিল     NEET ও JEE মামলায় তাই বহাল রাখলো এদিনকার তিন বিচারপতির বেঞ্চ। করোনা সংক্রমণের আশংকায় নির্ধারিত পরীক্ষাসূচি পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন ছিল পশ্চিমবঙ্গ, পাঞ্চাব, মহারাষ্ট্র, রাজস্থান, ছত্রিশগড়, ঝাড়খন্ডের রাজ্য সরকারের। তবে এদিন সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েদেয় – ‘রিভিউ পিটিশনে পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন টি যুক্তিসঙ্গত নয়, তাই পূর্বের ঘোষিত রায় পুনবিবেচনা করার কোন প্রশ্নই উঠেনা ‘। তবে সারা দেশে প্রতিটি পরীক্ষা কেন্দ্রে করোনা স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে যেন সবকিছু হয় তার নির্দেশিকাও রয়েছে সুপ্রিম কোর্টের তরফে। গত ১৭ আগস্ট সুপ্রিম কোর্ট এই মামলার পর্যবেক্ষণে জানিয়েছিল – ‘করোনা মহামারীও মধ্যেও জীবন থেমে থাকেনা। পরীক্ষার্থীদের মূল্যবান সময় নষ্ট করার কোন মানে হয়না ‘। উল্লেখ্য, সম্প্রতি কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী ভার্চুয়াল সভায় অবিজেপি মুখ্যমন্ত্রীদের কাছে এই সর্বভারতীয় ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষাসূচি পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন সুপ্রিম কোর্টে জানাতে অনুরোধ জানিয়েছিলেন। তাতে ৬  টি  রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সাড়া দেন। যার মধ্যে পশ্চিমবাংলাও পড়ছে৷ ইতিমধ্যেই সর্বভারতীয় জেইই পরীক্ষা শুরু হয়ে গেছে গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে। যা চলবে ১৩ সেপ্টেম্বর অবধি। এনইইটি পরীক্ষাটি হচ্ছে আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর। সাড়ে নয় লক্ষ পরীক্ষার্থী জেইই পরীক্ষা দিচ্ছে।সারাদেশে  ৬৬০ টি পরীক্ষাকেন্দ্রে ৪৪৩ জন গড় হিসাবে। আবার ৩৮৪৩ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে গড়ে ৪১৫ জন সর্বমোট প্রায় ১৬ লক্ষ পরীক্ষার্থী এনইইটি পরীক্ষায় বসবে। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে বিভিন্ন পরীক্ষাকেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের একাংশ  সময়মত পৌছাতে পারেনি বলে দাবি।ঠিক এইরকম পরিস্থিতিতে বাংলা সহ ৬ টি রাজ্য সুপ্রিম কোর্টে পূর্বেকার রায় পুন বিবেচনার আবেদন করেছিল গত ২৮ আগস্ট। সেই আবেদনের আজ অর্থাৎ শুক্রবার দুপুরে ছিল শুনানি। তিন সদস্যের বিচারপতিদের বেঞ্চ সর্বভারতীয় ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষায় নির্ধারিত সময়সূচিতে কোন  পরিবর্তন  ঘটালো না। রাজ্য গুলির আবেদনপত্রে কোন যুক্তিসঙ্গত কারণ নেই বলে তা খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট।