October 21, 2020

নিজস্ব প্রতিনিধি,

নদীয়ার নাকাশিপাড়া ব্লকের তেঁতুলবেড়িয়া, রঘুনাথপুর গোপালপুর সহ পার্শ্ববর্তী গ্রামের বহু গ্রাহকদের রেশন কার্ড আটকে রেখে রেশনের মাল তোলা , প্রচুর ডবল রেশন কার্ড তৈরি সহ রেশন ডিলার শরদিন্দু কুমার বণিক ও তার কর্মচারী জলিল উদ্দিন সেখের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ নিয়ে নাকাশিপাড়া বিডিও, নাকাশিপাড়া ওসি, নদীয়া জেলা খাদ্য দফতর,নদীয়া জেলা মহকুমাশাসক, নদীয়া জেলা শাসকের দফতরে লিখিত অভিযোগপত্র জমা করা এবং পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য খাদ্য দফতরে ইমেইলের মারফত
অভিযোগপত্র জমা করেও কোনো সুরাহা না হওয়ায় অভিযোগকারিরা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহায়তায় কোলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করবে বলে জানা গিয়েছে । অভিযোগকারিরা জানিয়েছেন আমরা AAY , SPHH শ্রেনীর অসহায় বিধবা ,ভিখারি মহিলা ও বৃদ্ধ বৃদ্ধারা লকডাউন থেকে সমস্ত সরকারি দফতরে বারংবার জলিলউদ্দিন সেখের রেশনকার্ড আটকে রাখা ও রেশন দ্রব্য না দেওয়া নিয়ে অভিযোগ করেও কোনো সুরাহা না হওয়াই আইনি পদক্ষেপ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে । স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সম্পাদক জানিয়েছেন নদীয়া জেলা খাদ্য নিয়ামক জুলাই মাসে একটি অর্ডার দেন “জলিলউদ্দিন সেখের বাড়ি থেকে একমাসের মধ্যে রেশন দোকান অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়া “কিন্তু দুই মাস অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পরেও রেশন ডিলারের কোনো হেলদোল নেই । এই সমস্ত বিষয় নিয়ে আইনজীবী মহ: ইকবালের সাথে আলোচনা করে কলকাতা হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা রুজু সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ।

অভিযুক্ত রেশন ডিলার সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।