January 21, 2021

মোল্লা জসিমউদ্দিন,

শনিবার ভোরে পশ্চিম বর্ধমান জেলার দুর্গাপুর ব্যারেজে ৩১ নং লকগেট টি ভেঙ্গে বিপত্তি ক্রমশ বাড়ছে। যা পরিস্থিতি তাতে দ্রুত মেরামতিও সম্ভব নয়। একাধারে দুর্গাপুর শহরে পানীয়জলের আশংকা অপরদিকে দুর্গাপুর ব্যারেজ সংলগ্ন আশেপাশের দশের বেশি গ্রামে কৃত্রিম বন্যার সম্ভাবনা দেখা গেছে। ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থল ঘুরে গেছেন দুর্গাপুরের মেয়র সহ মহকুমা প্রশাসন ও পুলিশের আধিকারিকরা। দুর্গাপুর ব্যারেজের একাংশে ‘কাঁপুনি’ দেখা যাচ্ছে জলের তোড়ে। জানা গেছে, লক্ষাধিক কিউসেক জল বের হয়ে গেছে এই জলাধার থেকে। যা পশ্চিম বর্ধমান জেলার পাশাপাশি বাঁকুড়া জেলার দুই থেকে তিনটি থানা এলাকায় বন্যার প্রকোপ বাড়িয়েছে। শিল্পনগরী দুর্গাপুরের জলশোধন প্রকল্পের জল এখান থেকেই মূলত যায়। সেজন্য আগামী সপ্তাহ থেকে তীব্র পানীয়জল সংকটের সম্ভাবনা দেখা গেছে। তবে আসানসোল – গলসি এলাকা থেকে পানীয়জল আনার ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে প্রশাসন সুত্রে প্রকাশ। বড়জোড়া থানার পুলিশ এলাকাবাসীদের মধ্যে অযথা আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য প্রচার চালাচ্ছে। স্থানীয় সুত্রে প্রকাশ, শনিবার ভোরে দুর্গাপুর ব্যারেজের ৩১ নং লকগেট টি হঠাৎই দুর্ঘটনাবশত ভেঙ্গে যায়। জলের তোড়ের এত তীব্রতা যে, ইঞ্জিনিয়াররা ভয়ে মেরামতির জন্য নামতে পারছেন না। ২০১৭ সালে দুর্গাপুর ব্যারেজের ১ নং লকগেট টি অনুরুপভাবে ভেঙ্গে পানীয়জলের সাময়িক সংকট এবং কৃত্রিম বন্যা তৈরি করেছিল। এখন দেখার কত তাড়াতাড়ি এই লকগেট মেরামতি হয়। দীর্ঘদিন ধরে দুর্গাপুর ব্যারেজে সেভাবে সংস্কার হয়নি বলে এলাকাবাসীদের অভিযোগ। জরাজীর্ণ রয়েছে ব্যারেজের বড় অংশ।