ইসমাইল ফিল্ম প্রোডাকশন

ইসমাইল ফিল্ম প্রোডাকশন

বৈদূর্য ঘোষাল,

: কলকাতা, ১৮ই এপ্রিল— সাম্প্রতিককালে ছোটদের নিয়ে তেমন নজর-কাড়া বাংলা ছবি তৈরি হয়নি। ছবির সেই খরাকে কাটাতে এগিয়ে এসেছেন ইসমাইল ফিল্ম প্রোডাকশনের পক্ষে প্রযোজক ইসমাইল মল্লিক। ‘কেয়ার অফ এ জার্নি’ নামে এবার বাংলা-হিন্দি দ্বিভাষিক কাহিনীচিত্রের কাজ শুরু করতে চলেছেন। মঙ্গলবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক বৈঠকে তিনি এ-খবর জানিয়েছেন। এদিনের বৈঠকে ছবির পরিচালক প্রতীক সরকার-সহ ছবির মুখ্য অভিনেতা রাহুল ব্যানার্জি, সুনীল ব্যানার্জি, অভিনেত্রী সুমনা দাস, শিশুশিল্পী রূপম মণ্ডল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কাহিনী-প্রসঙ্গে পরিচালক জানিয়েছেন, শহর থেকে বহু দূরে একটি প্রত্যন্ত গ্রাম। গ্রামের নাম ১১ মাইল। সেই গ্রামের ছেলে পাটু। মায়ের মৃত্যুর পর ঠাকুমা-ই পাটুকে লালিত-পালিত করে। পাটু তার বাবাকে কখনোই দেখেনি। লোকের মুখে শুনেছে তার বাবা কলকাতা শহরে থাকে। বাবা থাকতেও বাবা-হারা। এই বিষয়টা ভীষণ আক্ষেপ পাটুর কাছে। তাই সে গাঁয়ের লোকেদের কাছ থেকে নানা কৌশলে শহর কলকাতাকে জানার চেষ্টা করত। বৃদ্ধা বোবা-কালা শৈলবালা ও তার নাতি পাটু সম্পর্কে গল্পে এক অন্য মাত্রা নিয়ে আসে। গোটা গ্রামে তার মাত্র দুই বন্ধু— কালী এবং টুকাই। পাড়ার গোলদারির দোকানে খুঁড়োর সাথে গল্পের ছলে বাবার বিষয়ে জানতে গিয়ে শহর কলকাতাকে চিনেছিল পাটু। একদিন সিদ্ধান্ত নেয় বাবাকে খুঁজতে শহরে যাবে! সেই গ্রামে থেকে পালিয়ে শহরে এলো পাটু।… তারপর?

এক সর্বহারা ছেলের এগিয়ে যাওয়ার কাহিনী। পরতে পরতে থাকবে রহস্য। লড়াই। এবং উত্তরণ। ইসমাইল ফিল্ম প্রোডাকশনের দ্বিতীয় নিবেদন ‘কেয়ার অব এ জার্নি’। মূল ভাবনা প্রতীক সরকারের। চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন সপ্তর্ষি ঘটক, প্রতীক সরকার। পরিচালনা প্রতীক সরকার। সঙ্গীত পরিচালনায় দেব সেন। ছবিতে মাত্র দু’টি গান থাকছে। ক্যামেরয় রয়েছেন আকাশ পাল। মে মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে টানা শুটিং হবে ঝাড়গ্রামে। তারপর কলকাতায়। ছবিতে বাহুল ব্যানার্জি, সুনীল ব্যানার্জি, সুমান দাস, রূপম মণ্ডল সহ আরও অনেকে থাকবেন।

প্রসঙ্গত, বিগত কয়েক বছরের মধ্যে ইসমাইল ফিল্ম প্রোডাকশন সকলের নজর কেড়েছে। ইতিমধ্যে ‘জীবন সুধা, যেদিন তুমি বুঝবে, সংকট, রিউইঞ্জ, স্বল্প দৈর্ঘ্যের ছবি মুক্তি পেয়েছে। সম্পাদনা চলছে ‘সাইকো’ রহস্য ছবির। আগামী জুন মাসে রাজ্যের ২৫টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে দিব্যেন্দু পোরেল পরিচালিত ‘আরশিকথন’ বাংলা কাহিনীচিত্র। কাহিনীর কেন্দ্রে একটি আয়না। এই আয়নার সামনে দাঁড়ালেই নিজের অপরাধের ছবি ধরা পড়ে। কীভাবে সামান্য একটি আয়না পরিবারের মধ্যে আলোড়ন তোলে, তা অবিশ্বাস্য। টান টান উত্তেজনায় ভরপুর এ ছবিতে অভিনয় করেছেন সৌরভ ব্যানার্জি, ঐশ্বর্য চ্যাটার্জি, দেবিকা মুখার্জি, অভীক ভট্টাচার্য, সান্ত্বনা বসু, বরুণ চক্রবর্তী, পুলকিতা ঘোষ, দেবাশিস গাঙ্গুলি, সুনীল ব্যানার্জি, আদ্রিকা পোরেল, শিবাঙ্কু পাল, প্রশান্ত নন্দী, মনোজ সিং প্রমুখ।

Leave a Reply